আজ [bangla_day], [english_date] ইংরেজী, [bangla_date] বাংলা, [hijri_date] হিজরী | www.pekuanews.com | A 24 Hours National News Portal

ENGLISH

টির জয় ছাপিয়ে কেপা-বিতর্ক

আলোচনার কেন্দ্রে থাকার কথা ম্যানসিটির। রোববার ওয়েম্বলিতে ইংলিশ লিগ কাপের স্নায়ুক্ষয়ী ফাইনালে টাইব্রেকারে চেলসিকে ৪-৩ গোলে হারিয়ে মৌসুমের প্রথম শিরোপা ঘরে তুলেছে ম্যানসিটি। কিন্তু সিটির জয় ছাপিয়ে ব্রিটিশ মিডিয়ায় সবচেয়ে আলোচিত চরিত্র এখন চেলসির স্প্যানিশ গোলকিপার কেপা আরিজাবালাগা।

আলোচিত না বলে সমালোচিত বলাই শ্রেয়! কোচ মারিসিও সারির নির্দেশ অমান্য করে তুমুল এক বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন বিশ্বের সবচেয়ে দামি গোলকিপার। গত পরশু রাতের রুদ্ধশ্বাস ফাইনালে নির্ধারিত ৯০ মিনিট ও অতিরিক্ত ৩০ মিনিটের খেলা গোলশূন্য ছিল।

অতিরিক্ত সময়ের শেষদিকে চোট পান কেপা। ক্র্যাম্প বেশ ভোগাচ্ছিল তাকে। টাইব্রেকারের জন্য তাই তাকে তুলে নিয়ে বদলি হিসেবে দলের দ্বিতীয় গোলকিপার কাবালেরোকে নামাতে চেয়েছিলেন সারি। কিন্তু কেপা হাত নেড়ে মাঠ থেকে উঠে যেতে অস্বীকৃতি জানান।

শিষ্যের এমন অকল্পনীয় অবাধ্যতায় ডাগআউটে ক্ষোভে ফেটে পড়েন সারি। কোচকে এভাবে অসম্মান করায় ধারাভাষ্যকাররাও ধুয়ে দেন কেপাকে। পরে টাইব্রেকারে কেপা সিটির একটি শট ঠেকিয়ে দিলেও জর্জিনহো ও ডেভিড লুইজের ব্যর্থতায় শেষরক্ষা হয়নি চেলসির। তাতে কেপারও দায় আছে। লেরয় সানের

শট ঠেকালেও আগুয়েরোর দুর্বল শট নাগালের মধ্যে পেয়েও আটকাতে পারেননি চেলসির শেষপ্রহরী। তবে এজন্য ম্যাচ শেষে কেপাকে কাঠগড়ায় তোলেননি সারি। উল্টো পুরো বিষয়টিকে বড় ধরনের ভুল বোঝাবুঝি বলে চিত্রিত করেছেন। কেপাও একই সুরে বলেছেন, কোচকে অসম্মান করার প্রশ্নই ওঠে না। তিনি ভুল বোঝাবুঝির কথা বলেছেন।

দু’জনের অভিন্ন ব্যাখ্যা কেপার চোট আসলে গুরুতর ছিল না ক্র্যাম্পও হয়নি। কিন্তু বিষয়টি সারিকে জানাতে একটু দেরি করে ফেলেন দলের চিকিৎসক। ততক্ষণে রেগে আগুন সারি। পরে নিজের ভুল বুঝতে পারেন চেলনি কোচ। কিন্তু এই ব্যাখ্যা বিতর্কের আগুন পুরোপুরি নেভাতে পারেনি। ব্রিটিশ মিডিয়ার দাবি, চাকরি হারানোর ঝুঁকিতে থাকা সারির বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছেন দলের অধিকাংশ খেলোয়াড়। কেপার অবাধ্যতা তারই নমুনা।

কিন্তু সারি বললেন উল্টো কথা, ‘এই ম্যাচের পর নিশ্চিতভাবেই বলতে পারি পুরো ড্রেসিংরুমের সমর্থন পাচ্ছি আমি। কারণ যেভাবে নির্দেশনা দিয়েছি, ঠিক সেভাবেই তারা খেলেছে। সত্যিই আমি আমার খেলোয়াড়দের নিয়ে গর্বিত। হারলেও আমরা দেখিয়ে দিয়েছিল কতটা জমাট দল হতে পারে চেলসি।’

দুই সপ্তাহ আগে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে সিটির কাছে ৬-০ গোলে বিধ্বস্ত হয়েছিল চেলসি। সেজন্যই হয়তো টাইব্রেকারে হেরে তৃপ্তির ঢেঁকুর তুলছেন কোচিং ক্যারিয়ারে এখনও শিরোপার মুখ না দেখা সারি।

এমজে/

214 total views, 1 views today

Translate »